সোমবার | ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ | ১৩ ফাল্গুন, ১৪৩০

তিন ভাগে বিভক্ত লালপুর উপজেলা আ.লীগ

ইমাম হাসান মুক্তি, লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধি
সম্মেলনের ১৫ মাস পেরিয়ে গেলেও নাটোরের লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষনা করা হয়নি। সম্মেলনে ঘোষিত চার সদস্যের কমিটির সদস্যরা তিন ভাগে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করায় দলীয় বিভক্তি প্রকাশ পেয়েছে। ফলে সাংগঠনিক কার্যক্রমে অনেকটাই স্থবিরতা দেখা দিয়েছে বলে জানিয়েছেন নেতাকর্মীরা।
গত বছর ২৭ জুলাই সম্মেলনের প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি করর্পোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন নতুন কমিটির সভাপতি আফতাব হোসেন ঝুলফু, সহসভাপতি আ স ম মাহমুদুল হক মুকুল, সাধারণ সম্পাদক সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ সাগর ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম জয় এই চারজনের নাম ঘোষনা করেন। কমিটির অন্যান্য পদের নামসহ শিগগিরই অনুমোদিত কমিটি দেওয়া হবে জানানো হয়।
শুক্রবার (২০ অক্টোবর ২০২৩) দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, দীর্ঘ ৮ বছর পর ব্যাপক জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শেষ পর্যন্ত নাটোরের লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০২২ সালের ২৭ জুলাই। লালপুর ডিগ্রি কলেজ মাঠে সম্মেলনে নাটোর জেলা কমিটির সভাপতি ও নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মরহুম মো. আব্দুল কুদ্দুস উপজেলা আওয়ামী লীগের পূর্বের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন। পরে চার সদস্যের নতুন কমিটি ঘোষনা করেন প্রধান অতিথি। তাঁরা হলেন, নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য এ্যাড. আবুল কালাম আজাদের পক্ষের উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফতাব হোসেন ঝুলফু। বর্তমান সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুলের পক্ষের সহসভাপতি আ স ম মাহামুদুল হক মুকুল ও যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম জয়। আর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ সাগর নিজেই আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ঘোষণা দিয়ে মাঠে নেমেছেন। তিন বছর মেয়াদের কমিটির এক বছর পেরিয়ে গেলেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষনা না হওয়ায় পদপ্রত্যাশী আওয়ামী লীগের তৃণমূলের ত্যাগী নেতাকর্মীরা ক্ষোভ আর হতাশা প্রকাশ করেছেন।
পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীরা আরও বলেন, ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠন না করে চারজন নেতা চালাচ্ছেন লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যক্রম। আবার তাঁরা পৃথকভাবে উপজেলা আওয়ামী লীগের ব্যানারে ইচ্ছেমতো দলীয় কর্মসূচি পালন করছেন। যার ফলে অনেক নেতাকর্মী দলীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহন করেন না। দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের প্রত্যাশা অনুযায়ী মূল্যায়ন তাঁরা কোন দিকে যাবেন তাই নিয়ে হতাশায় রয়েছেন।
নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলস শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের (সিবিএ) সাবেক সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের বিলুপ্ত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল বাসার ভাদু বলেন, তিনি সহসভাপতি পদ প্রত্যাশী। সম্মেলনের প্রায় ১৫ মাস পার হতে চলেছে, তবুও পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় দলীয় কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে। দলীয় পরিচয় না থাকায় বিভিন্ন কর্মসূচিতে যেতে বিব্রত বোধ করেন। আগামী সংসদ নির্বাচনের আগে কমিটির অনুমোদন নিয়ে অনিশ্চয়তা ও সংশয় প্রকাশ করেন তিনি।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ সাগর বলেন, সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের যৌথ স্বাক্ষরে জমা দেওয়া পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন না হওয়ায় সকল নেতাকর্মীকে একত্রে নিয়ে দলীয় কার্যক্রম করা যাচ্ছে না।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফতাব হোসেন ঝুলফু বলেন, গত বছর নভেম্বর মাসে জেলা আওয়ামী লীগের কাছে কমিটি জমা দিয়েছেন। এখন অনুমোদন দেওয়া বা না দেওয়ার ব্যাপারে তারাই ভাল বলতে পারবেন।
নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম রমজান বলনে, দলের মধ্যে প্রতিযোগিতা ও গ্রুপিং থাকবে। তবে দলীয় কার্যক্রমে কোন স্থবিরতা নেই। উপজেলা থেকে পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দেওয়া হয়েছে।
জেলা আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সভাপতি এডভোকেট মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, সম্প্রতি তিনি সভাপতির দায়িত্ব নিয়েছেন। তাঁর জানা মতে, কমিটি সাবেক সভাপতির সময় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখনো হস্তান্তর করা হয়নি। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিবেন।
উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ২৪ মে আফতাব হোসেন ঝুলফুকে সভাপতি ও মো. ইসাহাক আলীকে সাধারণ সম্পাদক করে লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। গত বছর ১৯ মার্চ ঢাকার ধানমন্ডির কার্যালয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক (রাজশাহী বিভাগের দায়িত্ব প্রাপ্ত) এস এম কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে সমন্বয় সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ২৮ মে সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করে নাটোর জেলা আওয়ামী লীগ। দলীয় মতবিরোধের কারণে দুই বার পেছানোর পর শেষ পর্যন্ত ২০২২ সালের ২৭ জুলাই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
এতে আরও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যাবিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা, সদস্য বেগম আখতার জাহান, সদস্য সৈয়দ আবদুল আউয়াল শামীম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, নাটোর-১ (লালপুর-বাগাতিপাড়া) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, বর্তমান সংসদ সদস্য মো. শহিদুল ইসলাম বকুল, সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য আসন-৪৩ ও নাটোর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রত্না আহমেদ, নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নাটোর সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শরিফুল ইসলাম রমজান প্রমুখ।

স্বত্ব: নিবন্ধনকৃত @ প্রাপ্তিপ্রসঙ্গ.কম (২০১৬-২০২৩)
Developed by- .::SHUMANBD::.