মঙ্গলবার | ৫ মার্চ, ২০২৪ | ২১ ফাল্গুন, ১৪৩০

নাটোর-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন সাবেক সংসদ সদস্য কালাম

নাটোর প্রতিনিধি
৫৮ নাটোর-১ (লালপুর-বাগাতিপাড়া) আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য ও নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ।
সোমবার (২৭ নভেম্বর ২০২৩) দুপুরে লালপুর উপজেলার চংধুপাইল ইউনিয়নের আব্দুলপুরে নিজ বাড়ির আঙিনায় এক প্রতিবাদ সমাবেশ তিনি এই ঘোষণা দেন। বিকেলে লালপুর উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে তাঁর পক্ষে মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেন লালপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু বকর সিদ্দিক পলাশ ও চংধুপইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম।


সাবেক সাংসদ মমতাজ উদ্দিনের সহদোর বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. আবুল কালাম আজাদ ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নাটোর-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।
লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফতাব হোসেন ঝুলফুর সভাপতিত্বে ও অধ্যাপক মো. আমজাদ হোসেনের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন বাগাতিপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান, লালপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবু বকর সিদ্দিক পলাশ, চংধুপইল ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম, দয়রামপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাহাবুর ইসলামসহ নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সম্পাদক। এতে লালপুর ও বাগাতিপাড়া উপজেলার নেতা-কর্মী অংশ নেন।
সভায় অসাংগঠনিক, বিএনপি পরিবারের সন্তানের মনোনয়ন বাতিলের দাবি জানিয়ে আবুল কালাম আজাদ বলেন, মরহুম জননেতা মমতাজ উদ্দিনের হাতে লালপুরে আওয়ামী লীগের রাজনীতি প্রতিষ্ঠা পায়। দুর্বৃত্তদের হামলায় তাঁর ভাই মমতাজ উদ্দিন নিহত হওয়ার পর লালপুর-বাগাতিপাড়ায় আওয়ামী লীগের প্রতিটি কর্মসূচির সঙ্গে তিনি সম্পৃক্ত রয়েছেন। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে কখনো নৌকার বিরুদ্ধে অবস্থান নেননি। ২০১৪ সালে জননেত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে দলীয় মনোনয়ন দিলে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৮ সালে দুর্ভাগ্যবশত মনোনয়ন না পেলেও দলের জন্য কাজ করে চলেছেন। এবারও মনোনয়ন না দেওয়ায় নির্বাচনী এলাকার নেতা-কর্মীদের বিশেষ অনুরোধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। তিনি সবাইকে সহযোগিতা ও পাশে থাকার অনুরোধ জানান।
এদিকে গত রোববার বিকেলে নাটোর-১ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুলকে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করে আওয়ামী লীগ। এর পরপরই লালপুরের আব্দুলপুর রেলস্টেশনে ট্রেন অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল করেন তাঁর কর্মী সমর্থকেরা। তবে এই কর্মসূচিতে তাঁর ভাতিজা (মমতাজ উদ্দিনের ছেলে) ও লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদের কর্মী-সমর্থকেরাও যুক্ত ছিলেন।
মনোনয়নবঞ্চিত লালপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. ইসাহাক আলী বলেন, নৌকাবিরোধীকে (সাংসদ বকুল) দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। তিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগের মধ্যে বিরোধ বাধিয়ে দলের ক্ষতি করেছেন। তবে স্বতন্ত্র প্রার্থী হবেন না বা দলীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গিয়ে কোন প্রার্থীকেও সমর্থন দেবেন না বলে জানান তিনি।
এ ছাড়া মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহম্মেদ সাগর ও জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক কাজল রায় মনোনয়পত্র তুলেছেন।
ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও নাটোর জেলা শাখার সভাপতি, উত্তরবঙ্গ আখ চাষী সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল; জাসদের (ইনু) মো. জামাল উদ্দিন ফারুক ছাড়াও স্বতন্ত্র হিসেবে গ্রাম পুলিশ মো. এস্কেন আলী, আসাদুজ্জামান, সায়েদুল হক, এস এম হুমায়ন কবির মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেছেন ।

স্বত্ব: নিবন্ধনকৃত @ প্রাপ্তিপ্রসঙ্গ.কম (২০১৬-২০২৩)
Developed by- .::SHUMANBD::.